রেজি তথ্য

আজ: বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

চিকিৎসাসেবার মানোন্নয়নে টিম জেনারেল হাসপাতাল অত্যন্ত আন্তরিক : ডা. রাব্বি

ডেক্স নিউজ

চট্টগ্রাম ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ও উপ-পরিচালক ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেছেন, জনবল সংকট থাকা সত্ত্বেও চিকিৎসাসেবার মানোন্নয়নে টিম জেনারেল হাসপাতাল অত্যন্ত আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এটি শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত হওয়ায় কোভিডকালীন সময়ে সারাদেশে চিকিৎসাসেবার দিক থেকে এ হাসপাতাল একটি বিশেষায়িত হাসপাতালে পরিণত হয়েছে। বর্তমান সরকারের আন্তরিকতায় নিয়মিত টিকা, গণটিকা ও বুস্টার ডোজ প্রদানের কারণে কোভিড সংক্রমণ এখন শূণ্যের কোটায়। অন্যান্য সরকারী হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে সংযুক্তিতে এখানে ডাক্তার-নার্স-কর্মচারী এনে অত্যন্ত স্বচ্ছতার সাথে কোভিড টিকা প্রদানসহ হাসপাতালের জরুরী বিভাগ, আউটডোর ও ইনডোরে রোগীদের কাঙ্খিত সেবা দেয়া হচ্ছে। সমাজের কিছু কিছু ধর্ণাঢ্য ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান চিকিৎসা সরঞ্জাম প্রদান করায় জেনারেল হাসপাতালের কার্যক্রম আরও বেগবান হয়েছে। এ হাসপাতালকে ২৫০ শয্যা থেকে ৫০০ শয্যায় উন্নীত করে শীঘ্রই পূর্ণাঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রূপান্তরকরণসহ এখানে একটি কিডনী ডায়ালইসিস সেন্টার করার বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আজ ২৯ মার্চ ২০২২ ইংরেজি মঙ্গলবার বেলা ১২টায় চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)-টিআইবি’র “কোভিড-১৯টিকা প্রদানে সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়” শীর্ষক মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। চট্টগ্রাম ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল ও সনাক-টিআইবি চট্টগ্রাম মহানগর যৌথভাবে সভার আয়োজন করেন।

ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, এ হাসপাতালে মোট ১৮টি আইসিইউ বেড রয়েছে। এ বেডগুলো আগে করোনা আক্রান্ত মুমুর্ষ রোগীর জন্য ব্যবহার হতো। প্রান্তিক জনগোষ্ঠী থেকে শুরু করে ১২ বছরের অধিক বয়সী প্রায় সকলে কোভিড টিকার ১ম, ২য় ও বুস্টার ডোজের আওতায় আসার কারণে বর্তমানে করোনার সংক্রমণ পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ফলে আইসিইউ’র অধিকাংশ বেড শূন্য রয়েছে। এসব আইসিইউ বেডে নন-কোভিড জঠিল রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি ডায়রিয়া রোগীদের জন্য আলাদা ইউনিট করা হয়েছে। হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের খাবারের মান আগের তুলনায় উন্নত করা হয়েছে। জনবল সংকটসহ অন্যান্য সমস্যা সমাধান হলে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল একটি পূর্ণাঙ্গ হাসপাতালে পরিণত হবে।
টিআইবি চট্টগ্রাম মহানগরের এরিয়া কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ তোহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সনাক-টিআইবি’র সদস্য প্রকৌশলী মোঃ দেলোয়ার হোসেন মজুমদার। রিসোর্স পারসন হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. গোলাম মোস্তফা জামাল, কনসালট্যান্ট (গাইনী) ডা. রওশন আরা বেগম, সনাক-টিআইবি’র সহ-সভাপতি রওশন আরা চৌধুরী ও টিআইবি’র ক্লাস্টার কো-অর্ডিনেটর মোঃ জসিম উদ্দিন। সভায় মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে “কোভিড-১৯ টিকা প্রদানে সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়” শীর্ষক পর্যবেক্ষণ রিপোর্ট ও কর্তৃপক্ষের করণীয় বিষয়গুলো উপস্থাপন করেন সনাক-টিআইবি’র সদস্য অধ্যাপক সঞ্জয় বিশ্বাস। উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন জেনারেল হাসপাতালের পরিসংখ্যানবিদ¡ শওকত আল-আমির ওসমানী ও সিনিয়র স্টাফ নার্স মঞ্জু রানী দাশ প্রমুখ।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on pinterest
Pinterest
Share on reddit
Reddit

Discussion about this post

এই সম্পর্কীত আরও সংবাদ পড়ুন

আজকের সর্বশেষ

ফেসবুকে আমরা

সংবাদ আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০