রেজি তথ্য

আজ: বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ৯ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

শ্রমিক সমাজকে মূল্যায়ন করা গেলেই অর্থনৈতিক মুক্তি সম্ভব- চসিক মেয়র

ডেক্স নিউজ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, উন্নয়নের প্রধান কারিগর হচ্ছে শ্রমিক সমাজ। শ্রমিকদের শ্রমের মূল্যায়ন করা গেলেই প্রকৃত অর্থে অর্থনৈতিক মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মুক্তিযুদ্ধে শ্রমিক, কৃষক ও ছাত্র সমাজের ভূমিকা ছিল অগ্রগণ্য। মহান মুক্তিযুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছেন তাদের মধ্যে শ্রমিক, কৃষক, ছাত্র সমাজের সংখ্যাই বেশি। তাই আমাদের
স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে চেতনা অক্ষুন্ন রাখতে হলে শ্রমিকদের মূল্যায়ন করতে হবে। এই মূল্যায়নের মধ্য দিয়ে আগামীতে অর্থনৈতিক স্বাধীনতা অর্জন করা সম্ভব হবে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় থিয়েটার ইনস্টিটিউট হলে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জাতীয় শ্রমিক লীগ চট্টগ্রাম মহানগর শাখা আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।মহানগর শ্রমিকলীগের সভাপতি বখতেয়ার উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে ও আকতার উদ্দিনের সঞ্চালনায় এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট ইব্রাহীম হোসেন
চৌধুরী বাবুল, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য শফিক আদদান, চন্দন ধর। প্রধান বক্তা ছিলেন মোঃ সহিদ ডাকুয়াসহ সিবিএ, নন সিবিএ ও ওয়ার্ড শ্রমিক
লীগের নেতৃবৃন্দ।মেয়র আরো বলেন, বাংলাদেশ আজ বিশ্বের কাছে উন্নয়নের রোল মডেল হওয়ার
যোগ্যতা অর্জন করেছে। এই অর্জনের পেছনে পোশাক তৈরি প্রতিষ্ঠান ও বিদেশে কর্মরত শ্রমিকদের অবদানের ফসল। এই অবদানের কারণে আমাদের ব্যাংকে বিদেশী মুদ্রার রিজার্ভ ভান্ডার মজবুত হয়েছে। এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে শ্রমিক সমাজকে নানাভাবে প্রণোদনা দিতে হবে এবং উৎসাহ প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে। তিনি বলেন, আমাদের মুক্তিযুদ্ধ কারো হুইসেলের মাধ্যমে শুরু হয়েছে এমন বক্তব্য দিয়ে যারা জাতির কাছে মিথ্যাচার করছেন, তারা একটি চিহ্নিত সম্প্রদায়। তারা বঙ্গবন্ধুর পক্ষে প্রথম মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণা পাঠকারী মরহুম নেতা এম.এ হান্নানকে পর্যন্ত অস্বীকার করছেন। তৎকালীন চট্টগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.এ হান্নান
ছিলেন একজন শ্রমিক নেতা। বন্দর শ্রমিক লীগকে তার নেতৃত্বে আলাদা স্বত্ত্বা নিয়ে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিলো। এই বন্দর শ্রমিকেরাই ৭১’র
২৪মার্চ বাঙালিদের দমন করার জন্য পাকিস্তানী অস্ত্রবোঝাইকারী সোয়াত জাহাজ বন্দরে অস্ত্র খালাস করার প্রক্রিয়াকে প্রতিরোধ করেছিলো। যা আজ ইতিহাসের একটি অংশ। এই সংগঠন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে এগিয়ে আসবে বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on pinterest
Pinterest
Share on reddit
Reddit

Discussion about this post

এই সম্পর্কীত আরও সংবাদ পড়ুন

আজকের সর্বশেষ

ফেসবুকে আমরা

সংবাদ আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০