রেজি তথ্য

আজ: মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ১৩ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

আশুভ শক্তি নির্মুলের আশায় মঙ্গলশোভাযাত্রা

অয়ন মোহাম্মদ, ঢাকা :

দুই বছর করোনা কেড়ে নিয়েছে জীবনের ছন্দ। দুই বছর পর সেই ছন্দ ফিরিয়ে আনতে সবকিছু ‘নির্মল’ করার আশায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি সড়ক দ্বিপ থেকে বের হয়েছে মঙ্গল শোভাযাত্রা। প্রথমবারের মতো ঢাবির চারুকলা অনুষদের বদলে টিএসসি থেকে শোভাযাত্রা বের করা হলো। যা ঢাবির উপাচার্যের বাসভবন এলাকা ঘুরে আবারো টিএসসিতে এসে শেষ হয়। মঙ্গলশোভাযাত্রায় উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি মন্ত্রী কে এম খালিদ, ঢাবি উপাচার্য মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান, উপ-উপাচার্য মুহাম্মদ সামাদ, চারুকলা অনুষদের ডীনসহ অন্যরা।

চলমান মেট্রোরেল প্রকল্পের জন্য এই পরিবর্তন আনা হয়েছে। যদিও এই পরিবর্তনে স্বাভাবিক স্বতস্ফূর্ততায় তেমন কোনো ছন্দপতন হয়নি। বরং হাজারো মানুষের মিলনমেলায় পরিণত হলো পুরো প্রাঙ্গন। আর এবারের মঙ্গল শোভাযাত্রা থেকেই মহামারির গ্লানি ভুলে সুসময়ের বার্তা দিলো চারুকলা শিক্ষার্থীদের গড়া রং-বেরঙের মাছ, পাখি, ঘোড়া, টেঁপা পুতুলসহ রাজা-রানী মোটিফের মধ্য দিয়ে।

আজ সকাল ৯টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির সামনে থেকে বের হয় শোভাযাত্রাটি। ‘নির্মল করো, মঙ্গল করে মলিন মর্ম মুছায়ে’ প্রতিপাদ্যে বের হওয়া শোভাযাত্রার গন্তব্য ছিল ঢাবি ভিসির বাসভবন। ভিসির বাসভবনের সামনে স্মৃতি চিরন্তন ঘুরে শোভাযাত্রাটি আবার টিএসসিতে ফিরে যায়।

আয়োজকদের ভাষ্য, মেট্রোরেলের কাজ চলায় শাহবাগ থেকে টিএসসি পর্যন্ত সড়ক সঙ্কুচিত হয়ে পড়ায় এবার শোভাযাত্রার গতিপথে পরিবর্তন আনা হয়।

শোভাযাত্রা ঘিরে ছিল কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পুরো শোভাযাত্রার চতুর্দিকে সোয়াট, ডিবি, র‍্যাব, পুলিশ ও স্কাউট সদস্যদের কয়েক স্তরের নিরাপত্তা বেষ্টনী ছিল চোখে পড়ার মতোই। এছাড়াও সাদা পোশাকে গোয়েন্দা সংস্থাসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিম, শিক্ষক-কর্মকর্তাদের টিমও তৎপর ছিল।

শোভাযাত্রার পুরো পথে সিসিটিভি ক্যামেরা ও পর্যাপ্তসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন ছিল। পথে কেউ মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নিতে পারেননি। কারণ চতুর্দিকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সমন্বয়ে মানবপ্রাচীর গঠন করা হয়। নিরাপত্তার জন্য রমনা পার্ক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ আশপাশের এলাকায় কেন্দ্রীয় রাস্তা বন্ধ করে রাখা হয়।
শোভাযাত্রা বেরোনোর আগেই টিএসসি থেকে নীলক্ষেত যাওয়ার পথটি লোকারণ্য হয়ে পড়ে। শোভাযাত্রারর জন্য সকাল থেকেই রং-বেরঙের মাছ, পাখি, ঘোড়া, টেঁপা পুতুল, ঢাকঢোল-বাঁশি নিয়ে চারুকলা অনুষদের সামনের সড়কে অপেক্ষায় অবাল-বৃদ্ধ-বনিতা।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on pinterest
Pinterest
Share on reddit
Reddit

Discussion about this post

এই সম্পর্কীত আরও সংবাদ পড়ুন

আজকের সর্বশেষ

ফেসবুকে আমরা

সংবাদ আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১