রেজি তথ্য

আজ: বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ ১২ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

চট্টগ্রামের কলেজিয়েট স্কুলের ছাত্র পাপনের ১২ দিনেও সন্ধান মিলেনি

ডেক্স নিউজ

নিখোঁজ সন্তানকে ফিরে পেতে  উজ্জ্বল প্রসাদ দেবনাথ এবং মা রত্না রানী দেবনাথের কান্না যেন থামছেইনা।সন্তানের খোঁজে দেশের বিভিন্ন জায়গায় পাগলের মত ঘুরছে তারা। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন এলাকার সুনামধন্য সরকারি কলেজিয়েট স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের দিবা শাখার নবম শ্রেণীর নিয়মিত ছাত্র । সদরঘাট থানাধীন কলেজিয়েট স্কুলে পড়াশোনা করছে  উদয় দেবনাথ পাপন (১৪) । বাবার সাথে চট্টগ্রামের রাউজান থানা ধীন ১২নং উরকিরচর আবুরখীলে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছে। উজ্জল প্রসাদ দেবনাথ ও রত্না রানী দেবনাথের ছেলে উদয় দেবনাথ পাপন।

গত ২০২২সালের ১৮ই এপ্রিল রোজ সোমবার আনুমানিক সকাল ৮ টার দিকে চট্টগ্রাম সরকারি কলেজিয়েট স্কুলে যাবার কথা বলে, রাউজানের  বাসা থেকে বের হওয়ার পর আর বাসায় ফিরে আসেনি বলে জানান উদয় দেবনাথ পাপনের বাবা উজ্জ্বল প্রসাদ। উজ্জ্বল প্রসাদ দেবনাথ ছেলে উদয় দেবনাথ পাপনের স্কুলে যাবার সুবিধার্থে কদমতলীর রেলওয়ে ব্যারাকের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন স্বপন কুমার দেবনাথের ভাড়াঘরে ছেলের জন্য একটি রুম নেন । তার ব্যবহৃত মোবাইল নং- ০১৭১২৪৪৪৯০০ বন্ধ করে রাউজানের বাসায় ফেলে যাওয়ার কারণে,বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করার পরও কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি এবং বাসায় ফিরে না আসায় ২০২২সালের ১৯শে জুলাই মঙ্গলবার বাবা উজ্জ্বল প্রসাদ দেবনাথ  রাউজান থানাতে ১টি নিখোঁজ ডায়েরি করেন,যার ডায়েরি নং-৮৭২/২২। কেউ যদি নিখোঁজ উদয় দেবনাথ পাপনের সন্ধান পেয়ে থাকেন তাহলে ০১৮১৮৭০০২৮৩ এই মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ রইল।

সন্তানকে হারিয়ে বাবা উজ্জ্বল প্রসাদ দেবনাথ ও মা রত্না রানী দেবনাথের কান্না থামছেনা।পাগলের মত হয়ে সন্তানের খোজ পেতে মা রত্না এবং বাবা উজ্জ্বল প্রসাদ দেবনাথ দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছুটছে।মা-বাবার আহাজারি সন্তান জীবিত না মৃত একটু সন্ধান পেলই মনকে বুঝাতে পারবে বলে জানান।

ছেলের বাবা উজ্জল প্রসাদ দেবনাথ বলেন,
গত২৭/০৪/২০২২ইং বুধবার হঠাৎ করে আমার ছেলে পাওয়া গেছে,একথা বলে অপরিচিত এক ব্যক্তি ০১৭১৮২১৮০৫৬ এই নাম্বারে কল দিয়ে আমাকে বলেন,আপনার ছেলে নরসিংদীতে এক্সিডেন্ট করেছে, তার চিকিৎসার জন্য টাকা লাগবে এবং এই নাম্বারে ০১৩০৯০১০৫১২ দ্রুত টাকা পাঠান। তার কথা মতো আমার ছেলেকে ফিরে পাওয়ার জন্য ঐ একই দিনে আনুমানিক সকাল ১০:২১ মিনিটে আমি বিকাশে ১০১৫০( দশ হাজার একশত পঞ্চাশ) টাকা পাঠাই। তারপর থেকে নাম্বারগুলোতে যোগাযোগ করতে চাইলে নাম্বারগুলো বন্ধ দেখায়। ছেলের বাবা আরো বলেন,আমার ছেলেকে ফিরিয়ে পাওয়ার জন্য প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on pinterest
Pinterest
Share on reddit
Reddit

Discussion about this post

এই সম্পর্কীত আরও সংবাদ পড়ুন

আজকের সর্বশেষ

ফেসবুকে আমরা

সংবাদ আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯