রেজি তথ্য

আজ: শুক্রবার, ১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

কারো উষ্কানীতে অশান্তি সৃষ্টি করবেন‌‌ না : প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা ব্যুরো:

আন্দোলনরত গার্মেন্ট শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কারো উস্কানিতে আন্দোলনের নামে দেশে অশান্তি সৃষ্টি করবেন‌ না। কথায় কথায় রাস্তায় নেমে আন্দোলনের নামে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ করবেন না। এতে গার্মেন্টসের উৎপাদন ব্যহত হচ্ছে। বেতন বাড়ানোর নামে আন্দোলন করতে গিয়ে শেষে গার্মেন্ট যেন বন্ধ না হয়, সেদিকেও খেয়াল রাখবেন। কেন না আপনাদের আন্দোলনের নামে গার্মেন্ট কারখানা বন্ধ হলে, বেকার হতে হবে। তখন কি হবে। কাজেই সেদিকে খেয়াল রেখেই চলতে হবে। সবাই যেন ভাল থাকে সেটাই আমরা চাই। মঙ্গলবার (৭জুন) দুপুরে ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আয়োজিত এ আলোচনা সভায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে যোগ দেন শেখ হাসিনা। আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ এর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ ও ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান।প্রধানমন্ত্রী বলেন, কাজেই আমি বলবো, উস্কানি দিয়ে গার্মেন্টস শ্রমিকদের রাস্তায় নামিয়ে যারা দেশে অশান্তি সৃষ্টি করতে চায়। তাদের বিষয়ে জনগণকে সচেতন থাকতে হবে। তারা যেন কোনোভাবেই ফায়দা নিতে না পারে।

সবাইকে আবারো মিতব্যয়ী হওয়ার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের ফলে সারাবিশ্বে খাদ্যের সংকট দেখা দিয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি বাংলাদেশে যেন সেই সংকট সৃষ্টি না হয়। হ্যাঁ এটা ঠিক আমাদের অনেক পণ্য বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়। সেজন্যই কিছু পণ্যের দাম বেড়েছে। কারণ বাড়তি দামেই আমাদের সেগুলো কিনতে হচ্ছে। এই যুদ্ধ চলার ফলে দাম আরো বাড়তে পারে কিনা সেটিও দেখার বিষয়। কাজেই আমি বলব আমাদের কে উৎপাদন বাড়াতে হবে। ১ ইঞ্চি মাটিও ফেলে রাখা যাবে না। প্রত্যেক জায়গায় চাষাবাদ যেন করা হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। সেই সঙ্গে সঙ্গে কোন খাবার যেন নষ্ট না হয়। সেটাও খেয়াল রাখতে হবে।এসময় তিনি আরো বলেন, আজকের টানা রাষ্ট্রক্ষমতায় আছে বলেই আমাদের দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা সারা দেশে একের পর এক উন্নয়নগুলো করে যাচ্ছি। দেশবাসী আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে রাষ্ট্র ক্ষমতায় এনেছে বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আমি দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানাবো যে তাদের সমর্থন পেয়েছি বলেই আমরা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু করতে পেরেছি। ইনশাআল্লাহ ২৫ জুন আমরা এই সেতু উদ্বোধন করব।

যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে। উন্নয়নের এই অগ্রযাত্রা যেন অব্যাহত থাকে, সেজন্য দেশবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on pinterest
Pinterest
Share on reddit
Reddit

Discussion about this post

এই সম্পর্কীত আরও সংবাদ পড়ুন

আজকের সর্বশেষ

ফেসবুকে আমরা

সংবাদ আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১