রেজি তথ্য

আজ: বুধবার, ২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ১৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সাইফুলসহ ৫ ছাত্রদল নেতাকে গ্রেফতারের ঘটনায় বিএনপির নিন্দা ও প্রতিবাদ

ইসমাইল ইমন:

পুলিশের গুলিতে পঙ্গুত্ব বরণকারী চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সাইফ সহ ৫ জন ছাত্রদল নেতা গতকাল সোমবার (২৭ জুন) চট্টগ্রাম আদালতে হাজিরা দিতে গেলে পাচলাইশ থানা পুলিশ বিকাল সাড়ে চারটায় সোনালী ব্যাংকের সামনে থেকে তাদের তুলে নিয়ে গিয়ে নতুন অস্ত্র মামলায় কারাগারে প্রেরণের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন চট্টগ্রামের বিএনপি নেতৃবৃন্দ।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) এক বিবৃতিতে এই জঘন্য ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান মীর মো. নাছির উদ্দীন, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা বেগম রোজী কবির, গোলাম আকবর খন্দকার, এস এম ফজলুল হক, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন, সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান ও সদস্য সচিব মোস্তাক আহমেদ খান।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, এই ঘটনা আতঙ্কজনক। ছাত্রদল নেতা সাইফুল ইসলাম সাইফকে এভাবে গ্রেফতার করে কারাগার পাটানো নির্মম মনুষ্যত্বহীনতা এবং ভয়ানক অশুভ সঙ্কেত। এর আগেও তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে পুলিশ উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে পায়ে অস্ত্র ঠেকিয়ে গুলি করে, তাতে সাইফুল ইসলাম সাইফ চিরতরে পঙ্গু হয়ে যায়। আবারো তাকে একই কায়দায় আটক গভীর উদ্বেগজনক। রাষ্ট্র পরিচালনার সকল ক্ষেত্রে নিজেদের ব্যর্থতা আড়াল করতে এবং ভয়াবহ আওয়ামী দুঃশাসন টিকিয়ে রাখতেই সরকার এখন আরও হিংস্র রূপ ধারণ করেছে। শুধুমাত্র বিরোধী দলকে দমন করার জন্য মিথ্যা মামলা দিয়ে নেতাকর্মীদের পরিকল্পিতভাবে নির্যাতন নিপীড়ন করা হচ্ছে।নেতৃবৃন্দ বলেন, সাইফুল সহ অন্য ৪ জন ছাত্রদল নেতার কোন মামলায় ওয়ারেন্ট না থাকার পরও পাঁচলাইশ থানা পলিশ অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে তাদেরকে অস্ত্র মামলায় কারাগারে প্রেরণ করেছে। পুলিশ আদালত এলাকা থেকে তুলে নিয়ে অস্ত্র দিয়ে চালান দিয়ে উল্টো তাদেরকে সন্ত্রাসী হিসাবে প্রচার করছে। সাইফুল ছাত্রদলের বলিষ্ঠ নেতা, তাই তাকে দমানোর জন্যই এই গ্রেফতারের ঘটনা ঘটিয়েছে। সাইফুল সব মামলায় জামিনে আছে এবং তার মামলাগুলো সব রাজনৈতিক মামলা। এভাবে নিরাপরাধ ছাত্রদল নেতাদের গ্রেফতার ও অস্ত্র দিয়ে চালান দেওয়া প্রশাসনের জঘন্য ঘটনা।নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশ আজ পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। খুন গুম হত্যা নিত্য নৈমত্তিক ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে। এদেশে আজ কারো জীবন নিরাপদ নয়। বিরোধী দলের নিরাপরাধ মানুষ গুলোকে ধরে নিয়ে প্রতিদিন দেশের কোথাও না কোথাও এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। পুলিশ আজ বেপরোয়া। মানুষ আজ ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত। আদালতে বিচার নেই। সর্বক্ষেত্রে প্রেসক্রিপশনের মধ্য দিয়ে দেশ পরিচালিত হচ্ছে। পুলিশের গুলিতে পঙ্গু সাইফুলসহ ৫ জন ছাত্রদল নেতাকে বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেফতার তারই ধারাবাহিকতা।নেতৃবৃন্দ এ ধরনের অমানবিক ও জগন্য ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। অবিলম্বে সাইফুল ইসলাম, দেলোয়ার হোসেন, মো. আবিদ, মো. সাজ্জাদ ও ইমরান হোসেনের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানান।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on pinterest
Pinterest
Share on reddit
Reddit

Discussion about this post

এই সম্পর্কীত আরও সংবাদ পড়ুন

আজকের সর্বশেষ

ফেসবুকে আমরা

সংবাদ আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১