রেজি তথ্য

আজ: বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ ১২ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

রাঙ্গুনিয়ায় চুরি করতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে একজনের মৃত্যু

ডেক্স নিউজ

রাঙ্গুনিয়ায় ট্রান্সফরমার চুরি করতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) ভোর ৬টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় মো. শওকত নামে এক ভাঙারী ব্যবসায়ীকে আটক করেছে চট্টগ্রাম বাকলীয়া থানা পুলিশ। নিহতের নাম নুরুল ইসলাম নাহিদ (৪০)। সে হানিফ পরিবহনের চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটের সুপারভাইজার ছিলেন। তবে এর আড়ালে সে ট্রান্সফরমার চুরি সিন্ডিকেটের সাথে যুক্ত ছিল বলে পুলিশ সন্দেহ করছেন। সে কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার কাকারা গ্রামের আকবর আহমদের ছেলে। নগরের চাঁদগাঁওয়ের শামসুর কলোনী চেয়ারম্যান ঘাটা এলাকায় থাকতো সে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রহিম বলেন, নুরুল ইসলামের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় কে বা কারা জড়িত তা চিহ্নিত করতে গিয়েই আসল রহস্য উদঘাটন হয়। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের কল রেকর্ড চেক করে দেখা যায়, তার সাথে শওকত নামে এক ভাঙারী ব্যবসায়ীর অন্তত ৫০ বারের মতো কথা হয় এবং তার ফোনের লাস্ট লোকেশন রাঙ্গুনিয়া উপজেলার হাজারীখীল এলাকায় পাওয়া যায়। সেখানে খবর নিয়ে জানতে পারি, ওই স্পটে ট্রান্সফরমার চুরি চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। পরে শওকতকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ট্রান্সফরমার চুরি করতে গিয়ে নুরুল ইসলাম বিদ্যুতায়িত হয়েছে জানিয়ে ঘটনার বিস্তারিত স্বীকার করেন। ওসি আবদুর রহিম বলেন, রাতে সংঘবদ্ধভাবে রাঙ্গুনিয়ায় ট্রান্সফরমার চুরি করতে গিয়ে গুরুতর আহত হয় নিহত নুরুল ইসলাম। সেখান থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে নগরের কর্ণফুলী নতুন সেতু এলাকায় এনে দুজন ব্যক্তি তাকে সিএনজিচালিত অটোরিকশা করে চাঁদগাঁওয়ের বাসায় নিয়ে যান। নুরুল ইসলাম অসুস্থ হয়েছেন বলে তার স্ত্রীকে জানান। পরে তাঁকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য রওনা হন। কিন্তু ওসমান মাঝি নামে তাঁদের একজনকে পরিচিত বলে জানান নুরুল ইসলামের স্ত্রী। এ কথা শুনে ওই দুই ব্যক্তি অটোরিকশা থেকে নেমে যান। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক নুরুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করেন। ওসি আরও বলেন, নিহত নুরুল ইসলামের সুরতহাল প্রতিবেদন করতে গিয়ে দেখি তার মাথার তালুর বেশ কিছু চুল ছিল না। যেগুলো আবার রাঙ্গুনিয়ার ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্ত শেষে নিহত ব্যক্তির লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত ওসমান মাঝিসহ অন্যান্যদেরও আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে। এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। এদিকে ট্রান্সফরমার চুরির বিষয়টি জানতে চাইলে রাঙ্গুনিয়া পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম জুয়েল দাশ বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার সরফভাটা হাজারীখীল গ্রামের আলী বাপের বাড়ি এলাকার বাসিন্দারা অফিসে এসে জানান, তাদের এলাকায় রাত তিনটার দিকে অজ্ঞাত ব্যক্তির কান্নার আওয়াজ শুনতে পেয়েছেন। স্থানীয়রা গিয়ে দেখেন একটি বৈদ্যুতিক খুঁটির নিচে মাটিতে ২টি ট্রান্সফরমার পড়ে আছে। আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে এর সত্যতা পায় এবং খুঁটির উপরে আরও একটি ট্রান্সফরমার ভাঙা অবস্থায় পায় এবং নিচে উদ্ধারকৃত ট্রান্সফরমারের পাশে মানুষের চুল পাওয়া যায়। চোরের দল ট্রান্সফরমার চুরি করতে গিয়ে দুটি নামানোর পর তৃতীয়টি নামাতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়েছে। বিষয়টি দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য রাঙ্গুনিয়ায় ইদানিং ব্যাপক হারে ট্রান্সফরমার চুরির ঘটনা ঘটছে বলে জানা যায়। এরসাথে একটি চক্র জড়িত বলে সন্দেহ এলাকাবাসীর। ট্রান্সফরমার চুরি করতে গিয়ে নিহত হওয়ার বিষয়টি ভালভাবে তদন্ত করে এই চক্রের সকলকে আইনের আওতায় আনার দাবী স্থানীয়দের।

 

 

 

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on pinterest
Pinterest
Share on reddit
Reddit

Discussion about this post

এই সম্পর্কীত আরও সংবাদ পড়ুন

আজকের সর্বশেষ

ফেসবুকে আমরা

সংবাদ আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯